বাংলাদেশ মাদ্রাসা বোর্ড এর নাম সংশোধন ফরম

মাদরাসা বোর্ডে নাম সংশোধনের ফরম
নিচের দুটি ছবি এপিঠ ওপিঠ প্রিন্ট করে নিন

মাদ্রাসা বোর্ডে মাতার নাম সংশোধন ফরম
নিচের দুটি ছবি এপিঠ ওপিঠ প্রিন্ট করে নিন

মাদ্রাসা বোর্ডে পিতার নাম সংশোধনের আবেদন ফরম
নিচের দুটি ছবি এপিঠ ওপিঠ প্রিন্ট করে নিন

তথ্যটি শেয়ার করুন

8 thoughts on “বাংলাদেশ মাদ্রাসা বোর্ড এর নাম সংশোধন ফরম”

  1. আসসালামু-আলাইকুম।আমার সার্টিফিকেট স্কুল এ পাওয়া যাচ্ছেনা।তাছাড়া উক্ত সার্টিফিকেটটি সংশোধন করতে হবে।মার্কশীট, এডমিট কার্ড,রেজিষ্ট্রেশন কার্ড আছ। আমি কী সরাসরি উক্ত কাগজপত্র(মার্কশীট, এডমিট কার্ড, রেজিষ্ট্রেশন কার্ড) দিয়ে সার্টিফিকেট সংশোধনের জন্য আবেদন করতে পারব?নাকি হারানো সার্টিফিকেট সংগ্রহ করার জন্য আগে আবেদন করতে হবে? দয়া করে জানালে উপকৃত হব।

    Reply
  2. আমার সার্টিফিকেটে বাবা মায়ের নাম পরিবর্তন করতে হবে এটা কি করা যাবে জানালে ভালো হতো

    Reply
    • পরিবর্তন করতে পারবেন।
      জেনে নিন নতুন নিয়মে ঢাকা বোর্ডে কিভাবে নাম সংশোধন করবেন আপনার সনদের(certificate) জেএসসি, এসএসসি, এইচএসসি পরীক্ষার???? তা নিচে বলা হলো ( ছোট করে)

      কোন পত্রিকায় বিজ্ঞাপন, এফিডেবিট লাগবে না ইন শা আল্লাহ।

      (১) বাসায় বসেই করতে পারবেন অনলাইনে আবেদন ঢাকা বোর্ডের ওয়েবসাইটে ঢুকে ( স্কুল এ যাওয়া লাগবে না)।

      স্কুল,কলেজ ভিন্ন হলেও ১ ফর্মে আবেদন করতে পারবেন ইন শা আল্লাহ।

      আপনার নাম পরিবর্তনের জন্য আপনার জন্ম সনদ (Birth Certificate) লাগবে।
      বাবা,মায়ের নাম পরিবর্তনের জন্য তাদের জাতীয় পরিচয়পএ (Nid card) + যেকোন পরীক্ষার পাসের সনদ (যদি থাকে) লাগবে।

      ফি(cost) – 500 টাকা ( যেকোনো পরীক্ষার জন্য) । আপনার ৩টা পরীক্ষা হলে 1500 টাকা।

      ছবি লাগবে ১ কপি ( নতুন ছবি)।

      (২) এবার ওয়েবসাইটে এই লেখাটা আসবে “Your application is awaiting for approval at the Institute. Please contact with Institute or wait”…… এখন স্কুলের সাথে যোগাযোগ করতে হবে। এই বিষটা নিয়ে একটু সচেতন থাকবেন।খুব দ্রুত স্কুলের সাথে যোগাযোগ করবেন। স্কুল তাদের EIIN number ও password ব্যবহার করে আপনার আবেদন অনুমোদন(Approve) করবে।

      আর টাকা ” সোনালি স্লিপ ” মাধ্যমে দিতে হবে। সেই টাকা ব্যাংক, কার্ড, মোবাইল ব্যাংকিং যেকোনো একভাবে দিবেন। মোবাইল ব্যাংকিং (বিকাশ, রকেট) দিয়ে সহজে দিতে পারবেন ইন শা আল্লাহ।
      টাকা জমা দেয়ার পর ১টা মেসেজ আসবে যে নাম্বার দিয়ে আবেদন করেছিলেন ওই নাম্বারে । id number & password থাকবে ওই মেসেজ এ, যেটা ব্যবহার করে ওয়েবসাইটে ঢুকে আবেদনের বর্তমান অবস্থা জানতে পারবেন।
      “Last update ” নামে একটা ঘর পাবেন আবেদন ফ্রম এ ” প্রক্রিয়াধীন” লেখা থাকবে। “print order” নামটা খুজে পেলে এটার পাশে আপনার কাজ শেষ ( এটার জন্য অপেক্ষা করা লাগবে)।

      এবার অপেক্ষা করার পালা!!!!!!!!!!!!!

      (৩) বোর্ড থেকে মেসেজ আসবে।
      আপনাকে বোর্ড মিটিং এর জন্য ডাকবে ( বেশি পরিবর্তন করে থাকেন তাহলে হয়তোবা)। আর তা নাহলে মিটিং এর জন্য ঢাকবে না। এবার “ফ্রেশ কপি” জন্য আবেদন করবেন।

      সার্টিফিকেট জন্য আবেদন করবেন (৩টি পরীক্ষা হলে ৩টা আবেদন)

      নম্বর পএ জন্য (৩টি আবেদন)
      এডমিট কার্ডের জন্য (৩টি আবেদন)
      রেজিষ্ট্রেশন জন্য (৩টি আবেদন)

      রেজিষ্ট্রেশন জন্য ২০০ টাকা ( সম্ভবত) (প্রতি পরীক্ষার জন্য)
      এডমিট কার্ড, সার্টিফিকেট, নম্বর পএ ( প্রতিটার জন্য ৫০০ টাকা( সম্ভবত) প্রতি পরীক্ষার জন্য)

      এবার প্রতিটার জন্য মেসেজ আসবে। ৩টা পরীক্ষা হলে ৯টা মেসেজ আসবে ( রেজিষ্ট্রেশনের জন্য মেসেজ আসবে না)।

      সব মেসেজ আসলে বোর্ড এ গেয়ে পুরাতন কাগজপত্র জমা দিয়ে নতুন কাগজপত্র নিয়ে নিবেন।

      আল্লাহর উপর ভরসা রাখবেন, আল্লাহ সব সমস্যা সমাধান করে দিবেন ইন শা আল্লাহ।

      বিঃদ্রঃ কোন তথ্য ভুল দিয়ে থাকলে, আমাকে জানাবেন। ভালোভাবে হয়তো গুছিয়ে লিখতে পারি নি, এজন্য দুঃখিত।

      Reply
  3. মাদ্রাসা বোর্ডের সার্টিফিকেট পরিবর্তন করতে কি কি লাগবে

    Reply
  4. I was suggested this website by my
    cousin. I am not sure whether this post is written by him as
    nobody else know such detailed about my problem.
    You are wonderful! Thanks!

    Reply

Leave a Comment

Welcome...
Have you face any kind of problem just comment.