ধুর্‌ শালা

ধুর্‌ শালা..উপরোক্ত ছোট বাক্যটার গভীর অর্থ থাকার কারণেই যুগ যুগ ধরে তা চলমান। শালা না থাকলেও পুরুষ-মহিলা সবাই ”ধুর্‌ শালা” বাক্যটা ব্যবহার করতে পারেন। শালা কিংবা শালিদের কথামত কাজ করে যখন দেখেন ফাইসা গেছেন তখনি মুখ দিয়ে অটো “ধুর্‌ শালা” বাক্যটা বের হয়ে আসবে। কোন চতুর লোকের কথামত কাজ করে ধরা খেলেও আপনি তাকে শালা বানিয়ে ফেলবেন। উপরোক্ত আলোচনায় দেখা গেল ফালতু লোক মানেই শালারা। আর শালারা কি পরিমান ফালতু তা ভাবেন একবার।

এবার আসেন বাচার কথায়, শালারা নিজেদের কর্তৃত্ব যাহির করার জন্য তার কাজের সুনাম করতেই থাকবে যাকে আমরা এক কথায় ”নিজের ঢোল পিটানো” বলি (যদিও নিজের ঢোল নিজে পেটানই ভালো, তাতে ঢোল ফেটে যাবার চান্স কম)। আবার কোন ভুল করে থাকলে তা খুব সহজেই অন্যের ঘাড়ে তুলে দিতে পারে। তাই আত্তিয়ের খাতিরে তাদের কথা শুনুন এবং মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলুন। শালারা এতে দমবে না, সে তার বোনকে দিয়ে আপনাকে বুঝাতে চেষ্টা করেই যাবে তাই সাবধান। শালাদের কথায় ০% নির্ভর হবেন এবং সে যা বলবে তার প্রতিটা কথার প্রমান নিজে বুঝে নিবেন। ফাইনালি ডিসিশন আপনার কারণ কোন গলদ হলে দেখবেন শালা দূরে বসে আপনার বদনাম করছে।

তথ্যটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Welcome...
Have you face any kind of problem just comment.