দ্রুত নোট করার জন্য শর্টহ্যান্ডের ব্যবহার করা হলেও অনেক সময় দেখা যায় শর্টহ্যান্ডে লেখা চিহ্নটি বেশ বড় হয়। যা শর্টহ্যান্ডে দ্রুত নোট নেবার কৌশলের বিপরীত। তাই এ সকল শব্দ দ্রুত নোট করার জন্য পুরো উচ্চারণের বদলে তিনটি মৌলিক অক্ষর বা সংক্ষিপ্ত রুপের সাংকেতিক চিহ্ন লিখে নোট করতে হয়। যেমন: “বাংলাদেশ” এটির তিন অক্ষক “বদস” দুই অক্ষর BD এরপর “খলিল” এর “খলল” এমন অনেক শর্ট করে শর্টহ্যান্ড লিখে নোট করা যায়। অবশ্যই অনুবাদের সময় সঠিকভাবে অনুবাদ করবেন।

এখানে শটহ্যান্ডে লিখলে কেমন হয় আর শর্টকাটে লিখলে কেমন হয়। যদি শর্টহ্যান্ডে লিখলে বড়ই হয় এবং সময় বেশিলাগে তাহলে শর্টহ্যান্ড শিখে লাভ কি!!! তাই শর্টকাটে শর্টহ্যান্ড লেখার অভ্যাস রাখতে হবে। এটি সম্পূর্ন এবং অনেকটাই আপনার উপর নির্ভর করে। যেমন গাজীপুরকে আপনি গজপর লিখতে পারতেন তবে পরে অনুবাদ করার সময় অবশ্যই গাজীপুর লিখতে হবে। 

!! ব্লোগের কমেন্ট নোটিফিকেশন আমার কাছে পৌছাতে ব্যার্থ হয়, তাই ইউটিউবের ভিডিওতে কমেন্ট করুন।।

শর্টকাট শর্টহ্যান্ড প্রাকটিস ভিডিও দেখুন এখানে

শিটটি দেয়া হল আপনাদের প্রাকটিসের জন্য।

তথ্যটি শেয়ার করুন
No comments