আমার এক রুমমেট ছিলো, দূর্ভাগ্য থাকায় সেও নোয়াখালীর ছিলো। সারাদিন মার্কেটিং এর জব করতো আর গায়ের দূর্গন্ধ নিয়ে ঘুমাতো। তাতেও আমার আপত্তি ছিলো না। অন্য রুমমেট আপত্তি করতো। আর আমাদের দুজনারই সমস্যা হতো তার গ্যাসে। কারণ সে যখন গ্যাস ছাড়তো মনে হত কোন ইদুর মারা গেছে যেটা তার পেটের ভিতর। একে সিনিয়ার তার উপর একবার বলেছি চিকিৎসা করাতে। পরের বার যখন বললাম সে জানালো নিচের ঔষুধগুলাই নাকি তারে বার বার দেয়। তাই সে কোন ডাক্তারের কাছে যাওয়া বাদ দিয়া এগুলা মজুদ রাখে আর আমাদের কথা যখন তার গায়ে লাগে তখন তা খায়(সেবন করে)।        




 

 

 

 

 

 

তথ্যটি শেয়ার করুন
No comments